২৩ ও ২৬ শে জুন সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে মালেশিয়া জাতীয় নারী ফুটবল দলের বিপক্ষে দুইটি ‘ফিফা টায়ার-১’ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলা কথা ছিলো বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের। কিন্তু সিলেটের বৈরী আবহাওয়ার কারণে ভেন্যু পরিবর্তন করে কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামকে নির্ধারিত ভেন্যু করা হয়েছে। আজ ২৩ শে জুন কমলাপুরে প্রথম প্রীতি ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দল।

পূর্বের দেখায় ২০১৭ সালে সিঙ্গাপুরে সেই ম্যাচে মালেশিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছিলো বাংলাদেশ। তবে এখনকার বাংলাদেশ দলকে তখনকার তুলনায় বেশ পরিণত বলছেন বাংলাদেশ নারী দলের ফরোয়ার্ড কৃষ্ণা রাণী সরকার। তিনি বলেন,

‘২০১৭ সালে আমরা যে ম্যাচটি খেলেছিলাম তখন আমরা ছোট (বয়সে) ছিলাম, ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা কম ছিলো আমাদের। তবে এখন আমাদের আন্তজার্তিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা অনেক হয়েছে। যেহেতু আমরা পরিশ্রম করতেছি, ভালো অনুশীলন করতেছি তো সবই মিলিয়ে আমরা প্রস্তুতিটা ভালো হয়েছে।’

নারী ফিফা র্যাংকিংয়ে মালেশিয়া দলের বর্তমান অবস্থান ৮৫ তম, সেখানে বাংলাদেশ দল আছে র্যাংকিংয়ের ১৪৬ তম স্থানে। মালেশিয়া ৬১ ধাপ এগিয়ে থাকলেও এইবারের লড়াই হবে বাংলাদেশের ঘরের মাঠ কমলাপুরে। তাইতো একটু বেশী আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ নারী দলের মধ্যমাঠের খেলোয়াড় সানজিদা আক্তার। তিনি বলেন, ‘জয়ের প্রস্তুতি নিয়েই আমরা মাঠে নামবো। আগে আমাদের দুর্বলতা থাকলেও অনুশীলন করে আমরা তা শুধরে নিয়েছি। এখন আমরা অনেক বেশী শক্তিশালী। ’

অন্যদিকে আগামী ৪ জুলাই থেকে ফিলিপাইনে বসবে ১১ দলের ‘এএফএফ ওমেন্স চ্যাম্পিয়ন্সশীপ’। সেই টুর্ণামেন্টে অংশ নিবে মালেশিয়া। সেইজন্যে এই দুইটি প্রীতি ম্যাচকে প্রস্তুতি হিসেবে গণ্য করেছেন মালেশিয়ার নারী ফুটবল দলের ম্যানেজার সুরাইয়া বিনতে ইয়াকুব। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন,

‘ফিলিপাইনে অনুষ্ঠিত হতে পরবর্তী ম্যাচের জন্যে এইটাকে প্রস্তুতি হিসেবে দেখছি। টুর্ণামেন্টে আমরা রয়েছি স্বাগতিক ফিলিপাইন ও অস্ট্রেলিয়া নারী দল দলে, যেটা খুবই কঠিন গ্রুপ। তাই এই প্রীতি ম্যাচ দুইটিকে ভালো প্রস্তুতি হিসেবে দেখছি।’

প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের সুনাম করেছে সুরাইয়া বলছেন বাংলাদেশ নারী দলের উন্নতির কথাও। উদাহরণ হিসেবে সুরাইয়া দেখিয়েছে খুব সম্প্রতি ভারতকে পরাস্ত করার নজির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here