৩০ কোটি টাকা! অংকটা নিশ্চয়ই কম নয়। এই বড় বাজেটটিই পেতে পারে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। ফিফার শর্ত মেনে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামকে সেন্টার অফ এক্সিলেন্স হিসেবে গড়তে চায় বাফুফে। যেখানে ফুটবল একাডেমি ছাড়াও ফুটবল বিষয়ক নানা কার্যক্রম হবে। ফিফার সব শর্ত মেনে কাজ করতে পারলে প্রায় ৩০ কোটি টাকা পাবে ফেডারেশন যা ব্যবহার হবে ফুটবলের উন্নয়নে।

এর আগেও বাফুফের একাডেমি করলেও তা বেশিদিন সচল ছিলো না। তবে কমলাপুর স্টেডিয়ামকে ঘিরে নতুন স্বপ্ন বুনছে তারা। ইতিমধ্যে ফুটবল সেন্টার তৈরীর লক্ষ্যে সংস্কার কাজের প্রায় অর্ধেক শেষ হয়েছে, মাঠে বসানো হচ্ছে স্কোর বোর্ড, ফুটবলারদের জন্য নতুন করে বানানো হচ্ছে আবাসন।

এ বিষয়ে বাফুফের গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ভূঁইয়া বলেন, ‘আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছি। আশা করি কোভিট পরিস্থিতির উন্নতি হলে আমরা একাডেমির কার্যক্রমটা শুরু করতে পারবো।’

তবে এটি শুধুমাত্র ফুটবল একাডেমি নয়; মূলত এটি হবে সেন্টার অফ এক্সিলেন্স। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, ‘সেন্টার অফ এক্সিলেন্স একটি এলিট ফুটবল একাডেমি। এখানে তরুণ খেলোয়াড়দের ট্রেনিং ও গড়ে তোলার পাশাপাশি রেফারিং কোর্স, কোচিং কোর্স, ফুটবল বিষয়ক বিভিন্ন সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here