দেশের ক্রীড়াঙ্গনের অতি পরিচিত মুখ। মনসুর স্পোর্টিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা  সবার প্রিয় মো. মনসুর আলী আর নেই। ১১ মে (মঙ্গলবার) দিবাগত রাত আনুমানিক ১১টার সময় স্ট্রোক করে ইন্তেকাল করেন তিনি।ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর।

জানা গেছে, গত কয়েকদিন যাবত অসুস্থ ছিলেন মনসুর। তার হার্নিয়ার সমস্যা ছিল।১২ মে (বুধবার) সকাল ১১টায় ধোলাইপাড় স্কুল মাঠে মরহুম মনসুর আলীর নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে।

ক্রীড়াঙ্গনেই তার জীবন অতিবাহিত করেছেন। খেলার পেছনে সময় দিতে দিতে আর বিয়ের পিঁড়িতে বসা হয়নি তার। খেলোয়াড় ছিলেন না কিন্তু খেলাধুলার প্রতি অদম্য নেশা ও ভালোবাসা ছিল মনসুরের। নিজের নামে গড়েছিলেন মনসুর স্পোর্টিং ক্লাব। যে ক্লাবে খেলে পরবর্তীতে তারকা খেলোয়াড় বনেছিলেন অনেকেই। ফুটবলের পাশাপাশি হ্যান্ডবল, কাবাডি, টেবিল টেনিসসহ আরও কয়েকটি ডিসিপ্লিনে খেলত মনসুর স্পোর্টিং ক্লাব। নিজের অর্থ, সময় ও শ্রম ব্যয় করে চালাতেন ক্লাব। সেই ক্রীড়া পাগল মানুষটি সব কিছু ছাপিয়ে চলে গেলেন পরপারে।বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এলাকার অত্যন্ত প্রিয় মুখ ছিলেন মো. মনসুর আলী।  আর আসবেন না প্রিয় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম এলাকায়।

আচরণে নম্র-ভদ্র মনসুরের জীবন ছিল খুবই সাধারণ। খেলার বাইরে অন্য কিছু ছিলনা তার ভাবনায়। ক্রীড়াঙ্গনে নতুন আগতদের স্নেহ ও সম্মানে কাছে টানতেন।সাংবাদিকদের সঙ্গে ছিল তার গভীর সখ্যতা। বিশেষ করে ক্রীড়াঙ্গনের কোনো সাফল্যে মনসুর স্পোর্টিংয়ের অভিনন্দন বার্তা পৌঁছে দিতেন সাংবাদিকদের কাছে। আজ সেই মনসুরের জন্য ক্রীড়াঙ্গনের বইছে শোকের বার্তা।

মরহুম মো. মনসুর আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী মো. সালাহউদ্দিন, সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী, চার সহ-সভাপতি, নির্বাহী কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ, সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাইম সোহাগ ও বাফুফের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here