সরোয়ার জাহান : শৃঙ্খলা বর্হিঃভূত আচরণের জন্যে আতাউর রহমান ভূঁইয়া স্পোর্টিং ক্লাবে সহকারী কোচ রবিউল হাসান খান মনা ও এফসি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দলনেতা শাহাদাত হোসেন জোবায়েরকে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ডিসিপ্লিনারী কমিটি। আজ (বুধবার) চেয়ারম্যান জনাব মেজবাহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

গত ২৭ মে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অয়োজিত হয় বসুন্ধরা কিংস বনাম আতাউর রহমান ভূঁইয়া স্পোর্টিং ক্লাবের মধ্যকার ম্যাচের ৪৭ মিনিটে বসুন্ধরা কিংসের পক্ষে পেনাল্টি সিদ্ধান্ত দেন ম্যাচ রেফারী। কিন্তু এতেই ঘটে বিপত্তি। ম্যাচ রেফারীর পেনাল্টি সিদ্ধান্তে অস্বীকৃতি জানায় আতাউর রহমান ভূঁইয়া স্পোর্টিং ক্লাবের সহকারী কোচ রবিউল হাসান খান মনা। এতে রবিউল হাসান খান মনার ম্যাচ পরিচালনাকৃত রেফারিগণের সাথে অসুলভ ভাবভঙ্গির প্রকাশ ঘটে। যার ফলে তাকে নিজ দলের পরবর্তী চার ম্যাচের জন্যে নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেয় ডিসিপ্লিনারী কমিটি।

অন্যদিকে কুমিল্লা ইউনাইটেড এবং এফসি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মধ্যকার ম্যাচটিতে খেলা মর্ধ্যাহ্ন বিরতিতে এফসি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দলনেতা শাহাদাত হোসেন জোবায়ের ম্যাচ অফিসিয়ালদের সাথে শৃঙ্খলা বর্হিঃভূত বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এতে করে তাকেও নিজ দল এফসি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পরবর্তী চার ম্যাচে বহিষ্কার করে ডিসিপ্লিনারী কমিটি সিদ্ধান্ত দেয়।

এছাড়া গত বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমসের ফাইনালে অসুলভ আচরণ এবং রেফারীকে লাঞ্চিত করার দায়ে ৬ ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে সিলেট জেলা দলের ৬ ফুটবলারকে। গত ৭ই এপ্রিল বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসে সিলেট জেলা দলের বিপক্ষে মাঠে ফাইনালে নামে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। কিন্তু খেলা শেষে ম্যাচ পরিচালনাকারী রেফারীকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করে সিলেট জেলা দলের খেলোয়াড়রা। ফলে সিলেট জেলা দলের ছয় খেলোয়াড়কে আগামী ছয় ম্যাচের জন্যে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। উক্ত ছয় খেলোয়াড় হলো গোলরক্ষক হিলাল আহমেদ,দেলোয়ার,সমুজ আলী,রুমেল,মানিক ও হোসেন আহমদ আরিফ। এছাড়াও সিলেট জেলা দলকে ৫০,০০০ টাকা আর্থিক জরিমানা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here