বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে দিনের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে সাইফ স্পোটিং ক্লাব। উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে আরামবাগক ক্রীড়া সংঘকে ৪-৩ গোল পরাজিত করে তারা।

দুই দলেরই কয়েকজন খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত। ফলে মূল একাদশে পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে তারা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচের ২৯ মিনিটের মাথায় জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি কিক থেকে হেডে আরামবাগের জালে বল পাঠান সাইফ স্পোটিংয়ের নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার এমানুয়েল। তবে লিড বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি তারা। কর্ণার থেকে আসা বল সাইফের সবুজ হোসেনের হাত লাগলে পেনাল্টি পায় আরামবাগ। ৩৮ মিনিটে স্পট কিক থেকে ইসলোমজনের গোলে সমতায় ফিরে আরামবাগ। এতে ১-১ গোলের সমতা নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ হয়।

বিরতি থেকে ফিরে এসে গোলের জন্যে মরিয়া হয়ে উঠে সাইফ। কিছু সহজ সুযোগ হাতা ছাড়া করার পর ৭৩ মিনিটে গোলের দেখা পায় সাইফ। ইয়াসিনের ক্রস থেকে দূর্দান্ত শটে গোল করেন মারাজ হোসেন। ৭৬ মিনিটে ব্যবধান ৩-১ করে সাইফ স্পোটিং। মারাজ হোসেনের দেয়া বল থেকে হেডে গোল করেন তরুণ উইঙ্গার ফয়সাল আহমেদ ফাহিম।

ম্যাচে ৭৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান কমায় আরামবাগ। সাইফের গোলকিপার শান্ত ডি বক্সের ভিতর আরামবাগের খেলোয়াড় সাইরিদ্দিনকে ফাউল করলে ম্যাচের দ্বিতীয় পেনাল্টি পায় আরামবাগ। পেনাল্টি শট থেকে গোল করেন সাইরিদ্দিন। এরপর ৮৪ মিনিটে ম্যাচে সমতা ফেরায় আরামবাগ। রবিনের বাড়ানো বলকে সাইফের জালে পৌঁছে দেন আরাফাত মিয়া।

এমন অবস্থায় ম্যাচ ড্র হবে বলেই মনে হচ্ছিলো। কিন্তু ৮৭ মিনিটে সাইফ স্পোটিংয়ের পক্ষে জয়সূচক গোল করেন জামাল ভূঁইয়া। ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত এক গোল করে আরামবাগকে হতাশ করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪-৩ গোলের জয় দিয়ে মাঠ ছাড়ে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।

এই জয়ে ১৮ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের সপ্তম স্থান থেকে ষষ্ঠতে উঠে এসেছে সাইফ স্পোটিং।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here