প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলতে এসে ১ রাউন্ড আগেই অবনমিত হয়ে আবারো চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে নেমে গিয়েছে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। এছাড়া এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলও চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছিল ২ রাউন্ড আগেই। তাইতো লিগের শেষ দিকে এসে সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল স্বাধীনতার সঙ্গে অবনমিত হচ্ছে কে! মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র নাকি উত্তর বারিধারা? অবশেষে মিলেছে এই প্রশ্নের জবাব। আগামী মৌসুমেও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র আর অবনমিত হয়ে আগামী মৌসুমে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে নেমে গেল উত্তর বারিধারা। রেলিগেশন বাঁচানোর গুরুত্বপূর্ন ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে মুক্তিযোদ্ধা, আর আবাহনীর বিপক্ষে মাঠে নামে উত্তর বারিধারা। যেখানে টিকে থাকার জন্য তুলনামূলক সহজ সমীকরণে থাকা মুক্তিযোদ্ধা কাজটা আরো সহজ করেছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে। আর আবাহনীর কাছে বড় হারে বিপিএল থেকে হতাশার বিদায় উত্তর বারিধারার।

মুন্সীগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুর থেকেই সাইফকে চেপে ধরে মুক্তিযোদ্ধা। প্রথমার্ধের শেষ দিকে দুই জাপানিজ সোমা ও তেতসুয়াকির গোলে এগিয়ে যায় মুক্তিযোদ্ধা। ৪৫তম মিনিটে সোমার পাসে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন তেতসুয়াকি মিসাওয়া। এরপর বিরতি থেকে ফিরে ৫ মিনিটেই দুবার সাইফের জালে বল পাঠায় মুক্তিযোদ্ধা। ৪৬তম মিনিটে ওবায়দুর রহমান নবাবের পাসে সুদি আব্দাল্লাহ এবং ৪৯তম মিনিটে তেতসুয়াকির পাসে দারুন গোল করে ব্যাবধান ৩-০ করেন নবাব। এরপর ম্যাচের ৭৩তম মিনিটে আশরোর গাফুরভের গোলে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় সাইফ। এরপর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে ম্যাচ জমিয়ে দেন মুক্তিযোদ্ধার ডিফেন্ডার সাজন মিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত রক্ষণভাগের দৃঢ়তায় আর গোল হজম না করলে, ৩-২ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার পাশাপাশি আগামী মৌসুমেও বিপিএল খেলা নিশ্চিত করে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র।

দিনের অপর ম্যাচে গোপালগঞ্জে আবাহনী নয়, এক ডরিয়েলটনের কাছেই উড়ে গিয়েছে উত্তর বারিধারা। আকাশী-নীলদের এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড একাই করেন ৪ গোল। ম্যাচের ১৮তম মিনিটে দানিয়েল কলিন্দ্রেসের কর্নার থেকে দারুন হেডে গোল করেন ডরিয়েলটন। এই গোলের মিনিট তিনেক পরে আবারো গোল করেন এই ফরোয়ার্ড। ডান প্রান্ত থেকে রাকিব হোসেনের ক্রসে আবারো হেডে গোল করেন ডরিয়েলটন। এরপর ৪০তম মিনিটে রাফায়েল অগোস্তর বাড়িয়ে দেওয়া বলে দারুন চিপে গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন ডরিয়েলটন। বিরতির পর ৪৮তম অবশ্য মিসরীয় ফুটবলার মোস্তফা খাহরাবার পাসে বুলেট গতির শটে ব্যাবধান কমান মারুফ আহমেদ। এরপর ৫৮তম মিনিটে রাফায়েল অগোস্তর গোলে ৪-০ গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী। এরপর ৭৩তম মিনিটে রাফায়েল অগোস্তর ডিফেন্স ছেড়া পাসে গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে নিজের চতুর্থ গোল পূরণ করেন ডরিয়েলটন। এরপর ম্যাচের শেষ দিকে ৮৩তম মিনিটে উজবেক ডিফেন্ডার ফজিলভের দারুন ফ্রি কিকে ব্যাবধান কমায় বারিধারা। তবে ব্যাবধান কমালেও রেলিগেশন এড়াতে পারেনি ক্লাবটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here