এবারের মৌসুমের নারী ফুটবল লিগে দলবদলের পর থেকেই শিরোপার লড়াইয়ে বসুন্ধরা কিংসের পর যে নামটা বেশ জোরালো ভাবে শোনা যাচ্ছে, সেটা হলো আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ স্পোর্টিং ক্লাব। এবারের লিগের প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয় ম্যাচে এসেও জয়ের দেখা পেয়েছে ক্লাবটি। পাশাপাশি বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসও নিজেদের টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে। কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দিনের প্রথম ম্যাচে ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাবকে ১২-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ স্পোর্টিং ক্লাব। এরপর দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে বসুন্ধরা কিংস নারী দল ৭-০ গোলে হারিয়েছে সিরাজ স্মৃতি সংসদকে।

আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ স্পোর্টিং ক্লাবের কাছে ম্যাচের শুরু থেকেই কোনো প্রকার পাত্তা পায়নি ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব। প্রথমার্ধে ৯ম মিনিটে আকলিমা খাতুনের গোলে এগিয়ে যায় আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ। এরপর ২৭তম মিনিটে স্বপ্না রানী এবং ৩৪তম মিনিটে মাহফুজা খাতুনের গোলে প্রথমার্ধে ৩-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় ক্লাবটি। বিরতির পর ৫৪তম মিনিটে আকলিমার দ্বিতীয় গোলে ব্যবধান ৪-০ করে আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ। এরপর ৬২তম মিনিটে মনি দাস ও ৬৬তম মিনিটে সোমালি টের্কার দুই আত্মঘাতী গোলে ব্যবধান আরো বাড়ে। ৭০তম মিনিটে উন্নতি খাতুন, ৭৬তম কোহাটি কিসকু এবং ৮২তম মিনিটে আফেইদা খন্দকারের গোলে ব্যবধান হয় ৯-০। শেষ দিকে ৮৫তম, ৮৭তম ও ৮৯তম মিনিটে তিন গোল করে ফরাশগঞ্জের কফিনে শেষ পেরেকগুলো ঠুকে দেন মিরোনা।


দিনের দ্বিতীয় ম্যাচেও হয়েছে গোল উৎসব। ম্যাচের ৭ম মিনিটে বসুন্ধরা কিংসের এই গোল উৎসবের সূচনা করেন রিতুপর্না চাকমা। তবে প্রথমার্ধের বাকিটা সময় বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের আটকে রাখতে সক্ষম হয় সিরাজ স্মৃতি সংসদ। দ্বিতীয়ার্ধেও ৭২ মিনিট পর্যন্ত স্কোরলাইন ১-০ থাকে। তবে এরপরই আস্তে আস্তে ম্যাচে প্রভাব বিস্তার শুরু করে বসুন্ধরা কিংস, স্কোরলাইনে আসতে থাকে পরিবর্তন। ৭২তম মিনিটে শামসুন্নাহার জুনিয়রের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বসুন্ধরা। এর মিনিট দুয়েক পর স্কোরশিটে নাম তুলেন কৃষ্ণা রানী সরকার। ৮০তম মিনিটে দলের ৪র্থ গোলটি করেন সিরাত জাহান স্বপ্না। এরপর ম্যাচের যোগ করা সময়ে (৯০+১ মিনিটে) স্বপ্নার দ্বিতীয় গোল এবং মাতসুসিমা সুমায়ার দুই গোলে (৯০+৩ মিনিট ও ৯০+৫ মিনিট) বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বসুন্ধরা কিংস নারী ফুটবল দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here