দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ফুটবল আসর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। সাফের এবারের আসরের স্বাগতিক হওয়ার কথা ছিলো বাংলাদেশের। ৩০ আগস্ট সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের পর্দা উঠার সময় নির্ধারিত হলেও গত ২০ জুলাই স্বাগতিক হিসেবে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন(বাফুফে)। দেশের বর্তমান করোনা মহামারির ঊর্ধ্বগতি, ভেন্যু সংকট ইত্যাদি বিষয় পর্যালোচনা করে বাফুফে নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়।

বাংলাদেশ নাম প্রত্যাহার করায় সাফ আয়োজনে আগ্রহ দেখিয়েছে তিনটি দেশ। নেপাল সাফ আয়োজনে আগ্রহ প্রকাশ পূর্বেই প্রকাশ করেছে। আজ অনুষ্ঠিত সাফের একটি অনলাইন মিটিংয়ে ভারত ও মালদ্বীপ এই তালিকায় যুক্ত হয়। নতুন ঘোষনা অনুযায়ী অক্টোবরের প্রথম দিকে আয়োজিত হতে পারে এবারের আসরটি।

তবে সাফ আয়োজনে মূল বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে স্পনসর সমস্যা। কোনো স্পন্সর না পাওয়ার অনিশ্চিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ভাগ্য। বিগত আসরগুলোতে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের স্পন্সর হিসেবে ছিলো ফরাসি কোম্পানি লাগাডিয়ার স্পোর্টস। কিন্তু উক্ত কোম্পানি সাফের সাথে নতুন করে চুক্তিবদ্ধ না হওয়ায় স্পন্সর সংকটের সৃষ্টি হয়। এছাড়া গত একবছরে স্পন্সরের খোঁজ করেও নতুন কোনো স্পন্সর না পাওয়ায় এই সমস্যা কোনোরূপ সমাধান হয় নিই।

গতবছরই সাফ চ্যাম্পিয়নশীপের আসর বসার কথা ছিলো বাংলাদেশে। কিন্তু সেইসময় করোনা প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে স্থগিত করা হয় টুর্ণামেন্ট। গত বছরের টুর্নামেন্ট এবছর আয়োজনে চিন্তা থাকলেও করোনা পরিস্থিতি ও স্পন্সর সংকটের ফলে নতুন বাঁধার আর্বিভাব ঘটে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here