দেশের ঘরোয়া ফুটবলে নিঃসন্দেহে সবচেয়ে বড় ম্যাচ আবাহনী-মোহামেডান লড়াই। দুই ঐতিহ্যবাহী ক্লাবের ঐতিহ্যের লড়াই অবশ্য এখন অনেকটাই রঙ হারানো। তবে দেশের ফুটবল প্রেমীদের কাছে এই ম্যাচের নিবেদন কোনো অংশেই কম ছিলো না। বুধবার কুমিল্লার ভাষা সৈনিক শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে এই মৌসুমের দ্বিতীয় ‘ঢাকা ডার্বি’তে মুখোমুখি হয়েছিল আকাশী-নীল এবং সাদা -কালোরা। তবে ৬ গোলের ম্যাচে আবারো জয় পেয়েছে সেই আবাহনীই। আবাহনী-মোহামেডান বড় ম্যাচের দিনে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ছিলো আরো একটি ম্যাচ। সে ম্যাচে রাজশাহীতে উত্তর বারিধারার বিপক্ষে ৩-২ গোলের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ এফসি।

পুলিশ-বারিধারা ম্যাচের স্কোরলাইন জুড়ে শুধু বিদেশিদের নাম। দুই দলের হওয়া ৫ গোলের সবগুলোই এসেছে বিদেশিদের পা থেকে। ম্যাচের ১৪তম মিনিটে ম্যাথিউস বাবলুর পাসে আফগান ফরোয়ার্ড আমিরুদ্দিন শারিফির গোলে এগিয়ে যায় পুলিশ। বিরতির পর ব্যাবধান দ্বিগুণ করেন অধিনায়ক দানিলো কুইপাপা। রকির ক্রসে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন পুলিশ এফসির এই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার। এর মিনিট পাঁচেক পরই আবারো স্কোর শিটে নাম তুলেন শারিফি। এই আফগান ফরোয়ার্ডের দ্বিতীয় গোলে তখন জয় অনেকেই নিশ্চিত হয়ে যায় পুলিশের।

তবে ম্যাচের শেষ ২৫ মিনিটে এসে খোলস ছেড়ে বের হওয়ার আভাস দেয় বারিধারা। ৬৯তম মিনিটে আইভরি কোস্টের ডিফেন্ডার ইউসুফ মোরি বাম্বার গোলে ব্যবধান কমায় বারিধারা। এরপর ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে ইনজুরি সময়ে আরো এক গোল করে সমতায় ফেরানোর স্বপ্ন দেখান উজবেক মিডফিল্ডার কচনেভ। তবে শেষ পর্যন্ত আর কোনো রকম অঘটন ঘটাতে দেয়নি পুলিশ এফসির রক্ষণভাগ। ফলে ৩-২ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ পুলিশ এফসি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here