কুমিল্লার ভাষা সৈনিক শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত স্টেডিয়ামে উত্তাপ ছড়ানো এক ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে জয় পেয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। উত্তেজক এই ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীকে তাদের নিজেদের ঠেরায় ৪-৩ গোল পরাস্ত করেছে জামাল ভূঁইয়ার দল।

একটি গোল বাদে ম্যাচের সবকটি গোলই হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে। প্রথমার্ধের ৪৩ মিনিটে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের ক্রস থেকে একমাত্র গোলটি করে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা। বক্সের ভেতর প্রতিপক্ষ দলের কেন্ডে ইসা ও গোলরক্ষক সাইফুল ইসলাম থাকলেও গোল আটকাতে পারে নি।

ম্যাচের ৫১ মিনিটে গাফুরোভকে চট্টগ্রাম আবাহনীর অপু ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। কিন্তু পেনাল্টি থেকে লিড বাড়ানোর সহজ সুযোগ পেয়েও গোলবারে বাধাপ্রাপ্ত হলে সুযোগ হাতছাড়া করে এমেকা। ৫৭ মিনিটে অমিদ পোপালজাইয়ের গোলে সমতায় ফেরে চট্টগ্রাম আবাহনী। বক্সের ভেতরে কেন্ডে ইসা সাইফের দুইজনকে পাশ কাটিয়ে নিচু ক্রস করেন। কেন্ডের নিচু ক্রসে হেড করে গোল করে অমিদ পোপালজাই।

৬৫ মিনিটে কেন্ডে ইসা নিজে গোল করে চট্টগ্রাম আবাহনীকে এগিয়ে দেয়। বদলী খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামা সোহেব মিয়া লম্বা পাস থেকে মাঠের বামপ্রান্তে বল পায় কেন্ডে ইসা। বল পেয়ে সাইফের৷ সাদ্দাম হোসেন এনিকে পাশ কাটিয়ে বক্সের ভেতরে ঢুকে গোলে শট নেয় এবং বল সাইডবারে লেগে জালে জড়ায়। ৭২ মিনিটে ফয়সাল আহমেদ ফাহিম গোল করে দলকে ম্যাচে ফেরায়। এমেকার থ্রু বল থেকে নিহাদ জামান উচ্ছ্বাস হালকা করে ট্যাপ ইন থেকে গোল করে ফয়সাল আহমেদ ফাহিম।

মিনিট দুয়েক পর ফয়সাল আহমেদ ফাহিম আবার স্কোরবোর্ডে নিজের নাম তুলেন। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার পাস চট্টগ্রাম আবাহনীর খেলোয়াড়দের গলে বেরিয়ে গেলে ফাঁকায় বল পেয়ে যায় ফাহিম এবং সেখান থেকে বল নিয়ে গোল করেন এই উইঙ্গার। ৮৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে চট্টগ্রাম আবাহনীকে ম্যাচে ফেরায় পিটার থ্যাংক গড। সাইফের গোলরক্ষম মিতুল হোসেন বক্সের ভেতরে পিটার থ্যাংক গডকে ফাউল করে রেফারী সরাসরি পেনাল্টির বাঁশি বাজায়। এতে করে পেনাল্টি আদায় করে নেয় চট্টগ্রাম আবাহনী এবং পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচের সমতা ফিরিয়ে আনে পিটার থ্যাংক গড।

ম্যাচের ইঞ্জুরি টাইমে এমেকার থ্রু পাস থেকে ফাহিম বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে গেলে তাকে ফাউল করে চট্টগ্রাম আবাহনীর গোলরক্ষক সাইফুল ইসলাম। রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দিলে শেষ সময়ে গোলের দারুণ সুযোগ পেয়ে যায় সাইফ। প্রথম সুযোগ এমেকা হাতছাড়া করলেও দ্বিতীয় সুযোগ পেয়ে সাইফ স্পোর্টিংয়ের হয়ে পেনাল্টি থেকে জয়সূচক গোলটি করে এমেরি। এতে ৪-৩ গোলের জয় পায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।

দিনের আরেক ম্যাচে রাজশাহীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের হয়ে একমাত্র গোলটি করে ওবায়দুর রহমান নবাব। এই জয়ের ফলে অবনমনের রেড জোন থেকে বেরিয়ে এসেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here