বাংলাদেশের নারী ঘরোয়া ফুটবল মানে যেনো বসুন্ধরা কিংসের আধিপত্য। গতবারের মতো প্রতিপক্ষের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বসুন্ধরা কিংস। কিংসের বিপক্ষে পড়েছো তো মরেছো এটিই যেনো চিরায়ত সত্য,আজ আরো একবার প্রমাণিত হলো। আজ বাংলাদেশ নারী ফুটবল লীগের এবারের আসরের তৃতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি হয় ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব এবং বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচে ফরাশগঞ্জকে ১৩-০ গোলে পরাজিত করে নিজেদের একক আধিপত্যের জানান দিয়েছে কিংস।

ম্যাচের প্রথমার্ধে কিংসকে বেশ দমিয়ে রেখেছিলো ফরাশগঞ্জের নারী ফুটবলাররা। আক্রমণ আসলেও সফল হতে দেন। ম্যাচের ৪২ মিনিটে এসে কৃষ্ণা রাণী সরকার গোল করে কিংসকে ব্রেক থ্রু পাইয়ে দেন। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে প্রথম মিনিটে মারিয়া মান্ডা গোল করে লিড দ্বিগুণ করে। দুই মিনিটের ব্যবধানে তাহুরা খাতুন বসুন্ধরা কিংসের হয়ে তৃতীয় গোলটি করে। এতে ৩-০ তে এগিয়ে থেকে ম্যাচের প্রথমভাগের খেলা শেষ করে কিংস। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে কিংস তার পুরোনো রূপ ফিরে পেয়ে প্রতিপক্ষের উপর যমদূত হয়ে চড়াও হয়। ৪৯ তম মিনিটে কিংসের ফরোয়ার্ড তাহুরা খাতুন টানা দুই দুইটি গোল করে বসেন।

ম্যাচের ৫০ মিনিটে কৃষ্ণা রাণী সরকার স্কোরশিটে দ্বিতীয়বারের মতো নিজের নাম তুলেন। এতে লিড দাঁড়ায় ৫-০ তে। এর মিনিট দুয়েক পর এবার ফরাশগঞ্জের জালে বল পাঠান কিংসের মধ্যমাঠের খেলোয়াড় মনিকা চাকমা। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে সুমাইয়ার কর্ণার কিক থেকে হেডে গোল করেন আঁখি খাতুন। পরের মিনিটে সুমাইয়া কর্ণার কিক আবারো গোলের আনন্দে ভাসে কিংস শিবির। তবে এবার আঁখি খাতুনের বদলে বলে হেড করে গোল আদায় করেন ঋতুপর্ণা চাকমা।

৭৫ মিনিটের সময় মাঠে বামপ্রান্ত থেকে ঋতুপর্ণা চাকমার সুন্দর এক ক্রস থেকে পায়ের আলতো টোকাতে গোল করে নিজের হ্যাট্রিক সম্পন্ন করেন কৃষ্ণা রাণী সরকার। ৮১ মিনিটে সতীর্থ খেলোয়াড়ের থ্রু পাস থেকে এবার গোল করেন সিরাত জাহান স্বপ্না। এরপর ম্যাচের ৮৪, ৮৭ এবং ৯২ মিনিটে সিরাত জাহান স্বপ্না,কৃষ্ণা রাণী সরকার এবং ঋতুপর্ণা চাকমা আরো একটি গোল করলে শেষ পর্যন্ত ১৩-০ গোলের বড় এক জয় পায় বসুন্ধরা কিংস।

অপর ম্যাচে জয় পেয়েছে আতাউর রহমান ভুঁইয়া কলেজ এসসি।ঢাকা রেঞ্জার্স কে হারিয়েছে ৬-১ গোলের ব্যবধানে। দলের পক্ষে রিপা করেন ৪ গোল। বাকি দু গোল আসে সপনা ও রুপা। রেঞ্জার্সের হয়ে এক মাত্র গোলটি করেন কারানচিং।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here