বসুন্ধরা গ্রুপ দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবল লীগ ২০২১-২২ এ বি, জি, প্রেস স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাব এবং খিলগাঁও ফুটবল একাডেমী’র মধ্যে অনুষ্ঠিত শেষ খেলাটি পাতানো বলে প্রমান পেয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। এতে দুই দলই শাস্তির আওতায় এসেছে।

পয়েন্ট টেবিলের হিসাব নিকাশে ম্যাচের আগেই ধারণা করা যাচ্ছিলো খেলায় সমঝোতা করতে পারে দুই দল। ম্যাচের পূর্বে সুপার লিগ নিশ্চিত করা বি, জি, প্রেস স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের জন্য খেলা শুধুই আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়। অন্যদিকে তাদের প্রতিপক্ষ খিলগাঁও ফুটবল একাডেমী জিতলে অবনমন থেকে বেঁচে যায়। আগেই আন্দাজ করতে পেরে মহানগরী ফুটবল
লীগ কমিটি ম্যাচটির ভেন্যু পরিবর্তন করে এবং সব ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও ভিডিও রেকর্ডিং করে। পাশাপাশি ম্যাচের সময় উপস্থিত ছিলেন লিগ কমিটির উর্ধ্বতর কর্মকর্তাও।

যা ঘটার ছিলো তাই হলো। শক্তিশালী বি.জি. প্রেস ২-৪ ব্যবধানে ম্যাচটি হেরে যায় খিলগাঁওয়ের কাছে। খেলা শেষে অবনমতি হওয়া দল বিক্রমপুর কিংস বাফুফে’র কাছে পাতানো খেলার অভিযোগ উত্থাপিত করে। নিয়মানুযায়ী বাফুফে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্ত্রের জন্য বিষয়টি বাফুফে পাতানো খেলা সনাক্তকরণ কমিটির নিকট হস্তান্তর করে। বাফুফে পাতানো খেলা সনাক্তকরণ কমিটি বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত যেমন ম্যাচের ভিডিও এবং পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন, মোবাইল ফোনের CDR (Call Details Record), খেলার ভিডিও বিশ্লেষণ, উক্ত লীগের পয়েন্ট তালিকা পর্যালোচনা, উভয় দলের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়গণের গৃহীত সাক্ষাৎকার এবং বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন তথ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থার সার্বিক সহযোগীতা পর্যালোচনা করে বি, জি, প্রেস স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাব এবং খিলগাঁও ফুটবল একাডেমী’র উক্ত খেলাটি সম্পর্কে পাতানো খেলার বিষয়ে সুস্পষ্ট প্রমাণ পায়। বাফুফে পাতানো খেলা সনাক্তকরণ কমিটির উক্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে পাতানো খেলার সাথে সম্পৃক্ত থাকায় বি, জি, প্রেস ক্লাব এবং খিলগাও ফুটবল একাডেমী’র খেলাটি বাতিল বলে গণ্য করে কোন দল উক্ত খেলার পয়েন্ট ও গোলের সুবিধা পাবে না বলে সিদ্ধান্ত দেয়া হয়।

এছাড়াও বি. জি. প্রেস স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের মোট প্রাপ্ত পয়েন্ট হতে ৩ (তিন) পয়েন্ট কেটে নেয়া হয় এবং উভয় ক্লাবকে ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ) টাকা করে আর্থিক জরিমানা করা হয় যা আগামী এক মাসের মধ্যে জমা প্রদান করতে হবে। বি. জি. প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শিকদার মশিউর রহমান, কোচ মোঃ দেলোয়ার হোসেন এবং টিম ম্যানেজার জনাব মোঃ রফিকুল ইসলাম সরকারকে সকল ধরনের ফুটবল সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম হতে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এছাড়াও বি. জি. প্রেস ক্লাবের খেলোয়াড় সালমান রহমান (জার্সি-১), মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (জার্সি-২), শাহীন আলম প্রান্ত (জার্সি-৪), স্বাধীন বিশ্বাস ( জার্সি- ৫) ও মোঃ মেহেদী হাসান (জার্সি-১৩) কে সকল ধরনের ফুটবল সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম হতে ৬ (ছয়) মাসের জন্য এবং মোঃ তানিস মিয়া (জার্সি-২২) কে সকল ধরনের ফুটবল সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম হতে ৩ (তিন) মাসের জন্য নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও খিলগাঁও ফুটবল একাডেমী’র সভাপতি হাজী মোঃ নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, প্রধান প্রশিক্ষক মোঃ হাবিবুর রহমান ও টিম ম্যানেজার মোঃ ফারুক আহমেদকে সকল ধরনের ফুটবল সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম হতে ৬ (ছয়) মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়।

ভিন্ন এক ম্যাচের ফিক্সিংয়ের সাথে জড়িত থাকায় ইস্ট এন্ড ক্লাব এর প্রধান প্রশিক্ষক মোঃ সাগর হোসেন এক লক্ষ টাকা আর্থিক জরিমানা এবং সকল ধরনের ফুটবল সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম হতে ১ (এক) বছরের জন্য নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

উক্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাফুফে অ-১৮ ফুটবল লীগ ২০২১-২২ অংশগ্রহণ না করায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিঃ’কে পনের লক্ষ ও উত্তর বারিধারা ক্লাবকে ষোল লক্ষ টাকা আর্থিক জরিমানা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here