এবারের সাফ অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপে স্বাগতিক ভারতকে ধরা হচ্ছিল অন্যতম হট ফেভারিট হিসেবে। টুর্নামেন্ট ঘিরে তাদের প্রস্তুতিই তাদের ফেভারিট বলতে বাধ্য করেছিল। অপরদিকে প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয়ে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় নিয়ে কজনই বা ছিলেন আশাবাদী। কিন্তু কাগজে কলমে শক্তিশালী ভারতকে মাঠে তেমন কোনো সুযোগই দেয়নি পল স্মলির শিষ্যরা। উল্টো স্বাগতিকদের বিপক্ষে চোখে চোখ রেখে ২-১ গোলের জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। দলের হয়ে দুটো গোলই করেছেন ফরোয়ার্ড পিয়াস আহমেদ নোভা। আর ভারতের হয়ে এক গোল এসেছে গুরকিরাত সিংয়ের হেড থেকে। এই জয়ে রাউন্ড রবিন ফরম্যাটের অনূর্ধ্ব-২০ সাফের ফাইনাল খেলার পথে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

ভারতের ওড়িশার কালিঙ্গা স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে সমানে সমান লড়াই করে দুদল। ম্যাচের ২৯তম মিনিটে হঠাৎ করেই এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। রক্ষণ থেকে ইমরানের বাড়ানো লম্বা বলে ভারতীয় ডিফেন্ডার নিয়ন্ত্রণ নিতে ব্যার্থ হলে বল পেয়ে যান বাংলাদেশের ‘নাম্বার নাইন’ নোভা। পরে আরো এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোলরক্ষককে কোনো প্রকার সুযোগ না দিয়ে বা পায়ের শটে বল জালে জড়ান এই ফরোয়ার্ড।

অবশ্য এর মিনিট ছয়েক পরই সমতায় ফেরে ভারত। মাঝমাঠের কিছুটা সামনে থেকে সতীর্থের বাড়ানো লং বলে দারুন হেডে বাংলাদেশের জালে বল জড়ান ভারতীয় ‘নাম্বার নাইন’ গুরকিরাত। এরপর বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে বক্সের ভেতর নোভাকে ফেলে দেন ভারতের এক ডিফেন্ডার, সঙ্গে সঙ্গে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পেনাল্টিতে গোলরক্ষক ঠিক দিয়ে ডাইভ দিলেও নোভার জোরালো শট ঠেকাতে পারেননি। ফলে প্রথমার্ধেই ২-১ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিরতি থেকে ফিরে অবশ্য কিছুটা রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলার দিকে মনোযোগ দেয় বাংলাদেশ। রক্ষণ ঠিক রেখে কাউন্টার অ্যাটাকে উঠার ট্যাকটিক্সে খুব বেশি একটা আক্রমনের সুযোগ পায়নি বাংলাদেশ। কিন্তু জমাট রক্ষণে ভারতীয়দেরও দেয়নি কোনো সুযোগ। তবে বাংলাদেশের রক্ষণে বেশ কয়েকবার ভীতি ছড়ায় ভারতীয় ফরোয়ার্ডরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জমাট রক্ষণে ভারতকে আটকে ২-১ গোলের দারুন জয় তুলে নেয় বাংলাদেশের যুবারা।

এই জয়ে ২ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে বাংলাদেশ। আগামী ২৯ জুলাই নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মালদ্বীপের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here