বাফুফে ভবনে অতিথি হিসেবে আসলেন ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জাং। উপলক্ষ্য আগামী বছর বাংলাদেশ-দক্ষিণ কোরিয়ার কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তী পূর্ণ হচ্ছে। উক্ত কারণে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সাত্থে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত। এই সৌজন্য সাক্ষাৎকালে আরো উপস্থিত ছিলেন এএফসি কাউন্সিল মেম্বার ও বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাফুফের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু নাইম সোহাগ কোরিয়ান দূতাবাসের প্রথম সচিব ইয়ংমিন সিও।

বাফুফে ভবনে এসে সাংবাদিকদের কাছে আনন্দ প্রকাশ করেছেন কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত এবং সম্প্রতি সাফ জয়ী বাঘিনীদের অভিনন্দনও জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে এসে আমি খুব খুশি। বিশেষ করে এই মুহূর্তটি দারুণ। অতি সম্প্রতি বাংলাদেশ নারী দল সাউথ এশিয়ায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। প্রথমে বাংলাদেশ নারী দলকে অভিনন্দন জানাই। এটা বিশাল অর্জন।’

বাংলাদেশের ফুটবল কাজ করতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া। বিশেষ করে নারী ফুটবল নিয়ে কাজ ব্যাপার ইচ্ছুক কোরিয়া। এই নিয়ে কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত বলেন আরো বলেন, ‘আমরা চাই খেলাধুলার মাধ্যমে দুই দেশকে সংযুক্ত করতে। খেলাধূলার বিষয়ে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে চাই। বিশেষ করে নারী ফুটবল নিয়ে দুই দেশে আন্তরিকভাবে কাজ করতে চাই। আমরা চাই একে অপরকে জানতে। আগামী বছর বাংলাদেশ-কোরিয়া বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি পালন করবে। খেলাধুলা নিয়ে দুই দেশের ভেতর অনেক ইভেন্ট হবে। আমি কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গে কথা বলেছি যে কীভাবে এই পূর্তি উপলক্ষে সম্পর্কটাকে সুসংহত করতে পারি।’

বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনও কোরিয়ান ফুটবল নিয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। কোরিয়ান ফুটবল থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে বলে জানা বাফুফে সভাপতি। তিনি বলেন, ‘কোরিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলে নিয়মিত অংশ নেয়। এশিয়ার ফুটবলে পরাশক্তি। তাদের কাছ থেকে টেকনিক্যাল সহ বিভিন্ন বিষয় আমাদের শেখার ও সাহায্য নেয়ার সুযোগ রয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here