এযেনো অন্য এক বাংলাদেশ। ডিফেন্সের খোলসবদ্ধ বাংলাদেশ ফুটবল দল আজ দেখালো তার ভিন্ন এক রূপ। মালেশিয়ার কুয়ালালামপুরে বাকিত জালিল স্টেডিয়ামে ম্যাচে তুর্কমেনিস্তানের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হলেও নিজেদের খেলা জাদুতে তুর্কমেনিস্তানের আত্মা কাঁপিয়ে দেওয়া অন্য এক বাঘের দলকে দেখেছে বাংলার ফুটবল বোদ্ধারা।

৭ মিনিটে মাথায় কর্ণার কিক থেকে আলতো টোকায় আলতিমিরাতের গোলে লিড পেয়ে যায় তুর্কমেনিস্তান। তবে লিড বেশীক্ষণ ধরে রাখতে পারে নি তুর্কমেনিস্তান। ১৩ মিনিটে বিশ্বনাথ ঘোষের লম্বা থ্রো-ইন থেকে রাকিবের হেড তুর্কমেনিস্তানেরর গোলরক্ষক বল ক্লিয়ার করাতে পারলে তা পুরোপুরি করতে পারে নি। সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে হেড করে গোল করেন বাংলাদেশের মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

ম্যাচের ২০ মিনিটে বিশ্বনাথ ঘোষের লং পাস থেকে সাজ্জাদ লম্বা রান করে বলের পিছনে ছুটে আক্রমণে যায় কিন্তু তুর্কমেনিস্তানের ডিফেন্ডার গুসমিরাত শেষ তাকে আটকে দিয়ে দলকে রক্ষা করে। ২২ মিনিটে আবারো আক্রমণে যায় বাংলাদেশ। সাজ্জাদের কাছে বল পেয়ে বিপলু আহমেদ ডানদিক দিয়ে ঢুকে পড়েন কিন্তু ফিনিশিং ভালো না হওয়ায় তুর্কমেনিস্তান বড় বিপদ থেকে বেঁচে যায়।

৩৫ মিনিটে বিশ্বনাথের লম্বা থ্রো-ইন সাজ্জাদের ব্যাক হেডার থেকে গোলের আশংকা তৈরি হয়৷ সেখানে ইয়াসিন আরাফাত হেড নেওয়ার চেষ্টা করলেও কিন্তু তুর্কমেনিস্তানের গোলরক্ষক কর্ণারের বিনিময়ে গোল থেকে বাঁচিয়ে দেয়। ৪২ মিনিটে ইয়াসিন আরাফাতের পাস থেকে রাকিব বল পেয়ে একাই বল নিয়ে ছুটে যায় তুর্কমেনিস্তানের রক্ষণভাগে। ডানদিক দিয়ে উঠে এসে সাজ্জাদকে উদ্দেশ্য করে বল বড়ান। তবে সাজ্জাদকে গোল করার সুযোগ না দিয়ে তুর্কমেনিস্তানের ডিফেন্ডার গুসমিরাত স্লাইড করে বলকে সাইড লাইনের বাইরে বের করে দেন। ফলে ১-১ গোলের সমতা রেখে বিরতিতে যায় উভয় দল।

৭২ তম মিনিটে ম্যাচে লিড নেওয়ার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। তুর্কমেনিস্তানের খেলোয়াড়ের ভুল পাসের ফায়দা নিয়ে আক্রমণ তৈরি করেন বিপলু আহমেদ। বল বেশখানিকক্ষণ নিজের পায়ে রেখে বল দেন বক্সের ভেতরে থাকা ফয়সাল আহমেদ ফাহিমকে। ফাহিম গোলমুখে শট করলেও বল সরাসরি চলে যায় তুর্কমেনিস্তানের গোলরক্ষক মামেতের হাতে। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে কাউন্টার এটাক থেকে আমানোভ আর্সনাল গোল করে তুর্কমেনিস্তানকে পুনরায় ম্যাচে এগিয়ে দেয়।

রেগুলেশন টাইমের শেষ মিনিটে গোলের একেবারে সহজ সুযোগ হাতছাড়া করে বসে বাংলাদেশ। জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি কিক থেকে সুফিলে হেড হয়ে টুটুল বাদশার কাছে গোলের সুযোগ চলে আসে। কিন্তু বলে আলতো টোকা দিতে গিয়ে বলকে গোলবারের উপর দিয়ে তুলে দেন। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হলে ২-১ গোলের লড়াকু হার বরণ থেকে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here