বিপিএলের মতো এইবার নারী ফুটবল লীগেও দেখা যাবে বিদেশি ফুটবলার। আগামী নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া নারী ফুটবল লীগের এবারে আসরে প্রত্যেক দল তিনজন করে বিদেশি ফুটবল নিজের দলে ভেড়াতে পারবে এবং ম্যাচ খেলতে পারবে ২ জন করে খেলোয়াড়।

এবারের আসরের বিদেশি ফুটবলার ছাড়াও নতুন মাত্রা যোগ করবে আবাহনী লিমিটেড, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের মতো ঐতিহ্যবাহী দলগুলোর নারী স্কোয়াড। আবাহনী, মোহামেডানের পাশাপাশি শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রসহ আরো অনেক দলকে দেখা যাবে আসন্ন লিগে। তবে এখনও অংশগ্রহনের বিষয়ে আলোচনা করছে ক্লাবগুলো।

নারী ফুটবল লীগের গত আসর শেষ হয়েছিলো গত বছরের জুলাইয়ে। তবে এইবছর লিগ একটু বিলম্ব করেই শুরু হচ্ছে। এর পিছনে কারণ হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের আন্তজার্তিক ব্যস্ততা। আগামী আগষ্টে রয়েছে নারী দলের সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ। এছাড়া সেপ্টেম্বরের ফিফা উইন্ডোর পাশাপাশি নভেম্বরে দলে রয়েছে সাফ অ-১৫ চ্যাম্পিয়নশীপ। এইসব কারণে নভেম্বরে লীগ শুরু করার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

নারী ফুটবল লীগের গত দুই আসরে জাতীয় দলের প্রায় সব নারী ফুটবলার নিয়ে দল তৈরি করেছিলো বসুন্ধরা কিংস। তার ফলশ্রুতিতে প্রতিপক্ষ হজম করেছে ভুড়ি ভুড়ি গোল। তাই এবারের আসরে প্রত্যেকটা দলের মধ্যে ভারসাম্য তৈরি জন্যে বিভিন্ন দল পোল সিস্টেম করার দাবি জানালেও এতে ফুটবলারদের পারিশ্রমিক কমে যায়, তাই বাফুফে তা নাকোচ করে দিয়েছে। তবে ক্লাবগুলো নিজেদের শক্তিশালী দল গঠনের জন্যে বাফুফে তাদের সামনে খুলে দিয়েছে বিদেশি প্লেয়ারের দরজা।

নারী ফুটবল লীগে অংশ নেওয়ার জন্য ক্লাবগুলোর এন্ট্রির সময় শুরু হলেও এখনো পর্যন্ত কোন ক্লাব এন্ট্রি করেনি। যারা এবারের লিগে অংশ নিতে ইচ্ছুক তাদের এন্ট্রি করতে হবে আগস্টের মধ্যে। ক্লাব এন্ট্রির পর সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসের মধ্যে যে কোনো সময় করা হবে দলবদল। লিগ শুরু হবে নভেম্বরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here