দুই আসর পর আবারো ফেডারেশন কাপের শিরোপার মুকুট উঠলো ঢাকা আবাহনীর মাথায়। এই নিয়ে ১১ বারের মতো ফেডারেশন কাপের চ্যাম্পিয়নের তালিকা নিজেদের নাম লিখলো আকাশী-হলুদরা। এর আগে আজ বিকাল ৫:৩০ টায় রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটির মুখোমুখি হয় ঢাকা আবাহনী। ম্যাচে ২-১ গোলে জয় আবাহনী। আবাহনীর হয়ে ড্যানিয়েল কলিড্রেন্স, রাকিব হোসেন গোল করেন এবং রহমতগঞ্জের হয়ে একটি গোল শোধ দেন ফিলিপ আদজা।

ফাইনাল ম্যাচে ম্যান অফ দ্যা ফাইনাল এবং টুর্ণামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন আবাহনীর কোস্টারিকান ফরোয়ার্ড ড্যানিয়েল কলিড্রেস। এছাড়া যৌথভাবে টুর্ণামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরষ্কার পান ঢাকা আবাহনীর ডেরিয়েল্টোন গোমেজ ও রহমতগঞ্জের ফিলিপ আদজা। দুইজন টুর্ণামেন্টে চারটি করে গোল করেন।

ফাইনাল শেষে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের মধ্যে পুরষ্কার প্রদান করা হয়। চ্যাম্পিয়ন দল ঢাকা আবাহনীকে চ্যাম্পিয়নের ট্রফি,মেডেল ও ৫ লক্ষ টাকার চেক প্রদান করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী জনাব আ. ক ম মোজাম্মেল হক এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব জাহিদ আহসান রাসেল। রার্নাসআপ দল রহমতগঞ্জকে ট্রফি,মেডেল ও ৩ লক্ষ টাকার চেক প্রদান করেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন সিনিয়র সহ-সভাপতি ও প্রফেশনাল লীগ কমিটির চেয়ারম্যান জনাব আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জনাব মোঃ আখতার হোসেন, বাফুফের সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ আবু নাইম সোহাগ, বাফুফের সহ-সভাপতি জনাব কাজী নাবিল আহমেদ, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব জনাব পরিমল সিংহ, টি-স্পোর্টসের জেনারেল ম্যানেজার জনাব তাজবিরুল ইসলাম, প্রফেশনাল লীগ ম্যানেজমেন্ট কমিটির ডেপুটি চেয়ারম্যান জনাব আব্দুর রহিম, বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য জনাব জনাব জাকির হোসেন চৌধুরী, জনাব মোঃ নুরুল ইসলাম নুরু, জনাব মোঃ ইলিয়াস হোসেন, জনাব হারুন উর রশীদ এবং প্রফেশনাল লীগ কমিটির সদস্য জনাব সৈয়দ রেজাউল করিম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here