ফেডারেশন কাপ ২০২০ করোনা পরবর্তী সময়ে ফুটবল মাঠে গড়ানোর মাধ্যম হওয়ার পাশাপাশি টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময়ে হয়েছে নানা সমালোচনার উৎপত্তিস্থল। শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে কয়েকটি ক্লাব ও খেলোয়াড়রা ছিলেন আলোচনায়। বরাবরের মতো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের দিকে চেয়ে ছিলো ফুটবল প্রেমীরা। এবার কি শাস্তি পাবে অপরাধীরা; নাকি আবারো পার পেয়ে যাবে? এবার কঠোর হয়েছে ফেডারেশন। টুর্নামেন্টের বিভিন্ন ঘটনা শৃঙ্খলা কমিটি যাচাই-বাছাই ও আলোচনার মাধ্যমে শাস্তি ঘোষণা করেছে দায়ীদের উপর।

টুর্নামেন্টের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা ঘটে সেমিফাইনালে। অফসাইডের একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে রেফারির উপর চওড়া হন ঢাকা আবাহনীর খেলোয়াড়রা। এই ঘটনার শাস্তিস্বরূপ মিডফিল্ডার সোহেল রানাকে ৭৫ হাজার টাকা ও এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা, ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশাহকে ৫০ হাজার টাকা ও এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা এবং উইঙ্গ ব্যাক সাদ উদ্দিনকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে শৃঙ্খলা কমিটি। এছাড়াও ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে না যাওয়ায় দলের কোচ মারিও লেমসকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিরুদ্ধে খেলার শেষ সময়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন শেখ রাসেল কেসি’র তকলিস আহমেদ। এই ঘটনায় তাকে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে কমিটি। অন্য এক কোয়ার্টার ফাইনালে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সমর্থকরা অবৈধ টার্ফে প্রবেশ করে রেফারিকে গালিগালাজ ও প্রাণনাষের হুমকি দেয়ায় ক্লাবকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে ও ভবিষ্যতে সর্তক থাকতে নির্দেশ দিয়েছে।

শেখ রাসেলের বিরুদ্ধে ম্যাচ শুরু আগে লাইনআপে আসতে পাঁচ মিনিট দেরি করায় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে শৃঙ্খলা কমিটি। ঢাকা আবাহনীর বিরুদ্ধে ম্যাচের সময় উত্তর বারিধারা ক্লাবের সহকারী ম্যানেজার জাহাঙ্গীর আলম ও গোলরক্ষক কোচ শওকত আলী মাঠে প্রবেশ করায় উভয়জনকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি দলের বলবয় বেলালকে বাফুফের সবধরনের ফুটবল থেকে তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশ এফসি’র খেলোয়াড় মোহাম্মদ জুয়েলের দুটি পাসপোর্ট থাকার অভিযোগ জমা পড়েছে শৃঙ্খলা কমিটির কাছে। বিষয়টি তদন্তের জন্য একটি উপ কমিটি গঠন করা হয়েছে যারা আগামী ৭ দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিবে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত জুয়েলকে বাফুফে কর্তৃক আয়োজিত সকল খেলা হতে বিরত রাখার সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে।

ফাইনালের আগে ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দলের কোচ ও অধিনায়ক উপস্থিত না হওয়ায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে বাফুফে’র শৃঙ্খলা কমিটি। এই সকল শাস্তি সমূহের জরিমানা বাফুফে’র হিসাব শাখায় জমা দেয়ার জন্য সবাইকে একটি মেয়াদ নির্দিষ্ট করে দেয়া হয়েছে। গৃহীত এইসকল সিদ্ধান্তের সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের শৃঙ্খলা কমিটির চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here