আট নভেম্বর বিশ্বকাপ ২০২২ ও এশিয়ান কাপ ২০২৩ এর বাছাইপর্বের খেলা দিয়ে আবারে মাঠে ফিরবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। তাই আগস্টেই শুরু হওয়ার কথা জাতীয় দলের ক্যাম্প। মাঠে ফিরতে মুখিয়ে আছে ফুটবলাররা। দর্শকরাও অপেক্ষায় মাঠে বল গড়ানোর।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি ঢাকার বাইরে হওয়ার বিষয়টি আগে থেকেই জানিয়েছিলো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। সম্ভাব্য ভেন্যু হিসেবে সিলেটকেই ভাবা হচ্ছে। এই বিষয়ে বাফুফে’র সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ অফসাইডকে জানান, ‘যেহেতু আমাদের আগের সিদ্ধান্ত ছিলো যে আমরা সিলেটে ম্যাচ করবো তাই গত মাসের (জুন) ২৫ তারিখে আমরা সিলেট ডিএফএ ও ডিএসএকে চিঠি দিয়েছি মাঠ প্রস্তুত করার জন্য। এছাড়া এই বিষয়ে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদকেও চিঠি দিয়েছি আমরা।’

 

সবসময় দর্শক পরিপূর্ণ থাকা সিলেটের মাঠে আগেও হয়েছে আন্তর্জাতিক ফুটবল। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে দর্শকবিহীন ক্লোজ ডোর ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। তবে সিলেটেই ম্যাচ হবে বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত নয়। ভেন্যুর বিষয়ে বাফুফে এএফসি থেকে নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছে। কিন্তু যেহেতু তালিকায় সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের নাম রয়েছে, তাই সবধরণের নিয়ম নীতি মেনে তা প্রস্তুত করার কাজ এখনই শুরু করেছে ফেডারেশন। উক্ত বিষয়ে অফসাইডকে আবু নাঈম সোহাগ বলেন, ‘এএফসি থেকে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসে নি। এমাসেই(জুলাই) আসার কথা। তখনই আমরা বলতে পারবো সিলেটে ম্যাচ হবে নাকি না।আন্তর্জাতিক ম্যাচ করার ক্ষেত্রে যেহেতু অনেক ক্রাইটেরিয়া পূরণ করতে হয় সে জন্য সিলেটের মাঠ প্রস্তুত করতে বলা হয়েছে। তবে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে জুলাইয়েই।’

এখন পর্যন্ত বাছাই পর্বের বাংলাদেশের অবস্থা সুবিধাজনক নয়। আফগানিস্তানের সাথে হার দিয়ে শুরু পর ঢাকায় কাতারের সঙ্গে লড়াই করেও ২-০ ব্যবধানে হারের স্বাদ পায় জামাল বাহিনী। কলকাতার ভারতের বিপক্ষে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেও শেষ দিকে গোল হজম করে ১-১ ব্যবধানে ড্র করে ফিরে বাংলাদেশ দল। করোনা মহামারীতে খেলা বন্ধ হওয়ার পূর্বে শেষ ম্যাচে ওমানের সঙ্গে ৪-১ ব্যবধানে হার। চার ম্যাচে শেষে মাত্র একটি পয়েন্ট অর্জন করেছে বাংলাদেশ। এএফসি ও ফিফার প্রস্তাবিত নতুন শিডিউলে অক্টোবরের ৮, নভেম্বরের ১২ ও ১৭ তারিখে বাংলাদেশের তিনটি হোম ম্যাচ যথাক্রমে আফগানিস্তান, ভারত ও ওমানের সঙ্গে। অ্যাওয়ে ম্যাচ বাংলাদেশ খেলবে কাতারে ১৩ অক্টোবর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here